কোপা আর্জেন্টিনা জেতার সাফল্যে ম্যারাদোনার সর্বকালীন সেরা গোল ফুটবলপ্রেমীদের মনে ভাসছে

সব খেলার সেরা ফুটবল খেলা আর প্রতিবছর এই ফুটবল খেলা নিয়েই মানুষের মধ্যে এত উন্মাদনা তৈরি হয়। ফুটবল খেলা নিয়ে কখন‌ও মারামারি-হাতাহাতি লেগে যায়, ফুটবল খেলার দুই দলের মধ্যে কে সেরা এই বিবাদ কখন‌ও কখন‌ও প্রাণসংশয়েরও সৃষ্টি করে। বাঙালির যাবতীয় চায়ের ঠেকের আড্ডা আজও শুরু হয় ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে।

এই ফুটবল খেলার মধ্যে সবথেকে আলোচিত দুটি বিষয় হলো, ‘হ্যান্ড অফ গড’ আর ‘গোল অব দ্য সেঞ্চুরি’। আর সবথেকে বেশি আলোচিত ফুটবলের এই দুটি গোল‌ই হয়েছিলো চার মিনিটের ব্যবধানে ম্যারাডোনার দ্বারা। হ্যাঁ ১৯৮৬ সালে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে এই দুটো গোল করেছিলেন ডিয়েগো ম্যারাডোনা। ১৯৮৬ তে ‘চিরশত্রু’ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে এই দুটি গোল করে রেকর্ড তৈরি করেছিলেন তিনি।

সেইবার ম্যাচের ৫১ মিনিটে তিনি রেফারিকে ফাঁকি দিয়ে হাত দিয়ে বল জালে ঠেলে দিয়েছিলেন। এই গোলটি বিশ্ব ইতিহাসে কলঙ্কিত অধ্যায় হয়ে থাকতে পারতো কিন্তু এরপরের ৪ মিনিট তিনি যে অবিশ্বাস্য গোল করলেন তা সমগ্র পরিস্থিতিকেই বদলে দিলো।

ছয় ইংলিশ ফুটবলারকে কাটিয়ে মাঝ মাঠের ভেতর থেকে একাই বল টেনে নিয়ে গিয়ে গোল করেন তিনি। ২২ জুন হ্যান্ড অফ গড আর গুগোল অফ দা সেঞ্চুরি করে ইতিহাসে অমর হয়ে উঠেছিলেন ম্যারাডোনা।

১৯৮৬ র আসরে ম্যারাডোনা ৫৩ টি ড্রিবল সম্পন্ন করেন। আর্জেন্টিনার হয়ে ৯১ টি ম্যাচ খেলে ৩৪ টি গোল করেছিলেন তিনি। অর্থাৎ প্রতি ম্যাচে তিনি প্রায় আট বার প্রতিপক্ষকে এড়িয়ে এগিয়ে যেতে পেরেছেন। ২৫ শে নভেম্বর ২০২০ সালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান এই কিংবদন্তি খেলোয়াড়। তার ৬০ বছরের জীবনীকাল শেষ হয়, রয়ে যায় তারপর আর শতাব্দীর সেরা দুই গোল, ফুটবলের জগতে সেই ইতিহাস যা তিনি নিজে করে গিয়েছিলেন। ফুটবলের জগতে ইতিহাস তৈরি করা ম্যারাডোনার দুটি গোল আজ ও আলোচিত। সেই গোল করার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছিল ঝড়ের গতিতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *