বিপর্যয় মোকাবিলায় বরাদ্দ কম রাজ্যে, ক্ষোভে অমিতকে বিঁধলেন মমতা

নিউজ ডেস্কঃ রাজ্যে আছড়ে পড়তে চলেছে অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘‌ইয়াস’‌। তার মোকাবিলা সংক্রান্ত পর্যালোচনা আজ বৈঠকে বসেছিলেন দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। আর সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ওড়িশা এবং অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীরাও ছিলেন বৈঠকে। সেখানেই ‘‌ইয়াস’‌ মোকাবিলার জন্য ওড়িশা এবং অন্ধ্রপ্রদেশকে ৬০০ কোটির বেশি টাকা দেওয়ার কথা বলেন অমিত শাহ। আর বাংলাকে ৪০০ কোটি টাকা দেওয়ার কথা বলেন। আর সেই কথার জবাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অমিত শাহকে বলেন, “ওড়িশা এবং অন্ধ্রপ্রদেশের চেয়ে বাংলার জনসংখ্যা বেশি, জেলার সংখ্যা বেশি, আয়তনেও অনেক বড় বাংলা। অথচ বাংলাকে কম টাকা দেওয়ার কথা বলছেন।” পাল্টা উত্তরে অমিত শাহ জানালেন, “মমতাজি এই বিষয়ে আমরা পরে আলোচনা করব। তবে যা বরাদ্দ করা হয়েছে ৩ রাজ্যের জন্য সবটাই বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে করা হয়েছে।” তারপর বৈঠকে এই নিয়ে কিছু না বললেও পরে নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “ওড়িশা এবং অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূলবর্তী রাজ্য ওদের বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে তাতে আমার কোনও আপত্তি নেই। কিন্তু আমাদের রাজ্যের আয়তন, জনসংখ্যা বেশি হলেও বরাদ্দ কম দিচ্ছে। অমিত শাহজি বললেন বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে এই টাকা দেওয়া হচ্ছে। আমি রাষ্ট্র বিজ্ঞান বুঝি, এই বিজ্ঞান সত্যিই বুঝতে পারছি না। প্রতিবার বাংলার সঙ্গে এই বৈষম্য কেন করা হয় আমি জানি না। আমফানের সময়েও প্রাপ্য টাকা কেন্দ্র আজও দেয়নি। কোভিডের টাকাও আমাদের দেয় না। তবে বৈঠক হয় আজ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে উনি বলেছেন এই দুর্যোগে পাশে থাকবেন। তবে অর্থ বরাদ্দের বিষয়ে বাববার বাংলাকে বঞ্চিত করা হয় এই বিষয়ে আমার খারাপ লাগছে। আমাদের রাজ্য সরকার সবরকম ভাবে প্রস্তুত আছে। সাধারণ রক্ষা করার বিষয়ে আমরা সবসময় সজাগ আছি। তাই আতঙ্কিত হবেন না, সতর্ক থাকবেন।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *