জেলবন্দির হাসপাতালে মৃত্যুর পর চার দিন কেটে গেলেও দেহ না পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ পরিবারের

জেলবন্দির হাসপাতালে মৃত্যুর পর চার দিন হয়ে গেলেও পরিবারের লোক দেহ না পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ। বারাসাত পূর্বাচলের বাসিন্দা রাজা লোহার (৩৪ ) তাকে গত শনিবার (০৬.০৫.২৩) হেরোইন বিক্রি করার অপরাধে গ্রেফতার করে বারাসাত থানার পুলিশ।

আরো পড়ুন-তৃণমূলের নবজোয়ার কর্মসূচিতে ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ বর্ধমানের জামালপুরে!

রবিবার বারাসাত আদালত ১৪ দিনের জেলে হেফাজত এর নির্দেশ দেন। দমদম সেন্ট্রাল জেলে অসুস্থ হয়ে পড়ার কারণে রাজা লোহার কে আরজিকর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।পরিবারের লোককে খবর দেওয়া হলে আরজিকর গিয়ে দেখে আসেন মঙ্গলবার। বুধবার তারা জানতে পারেন রাজা লোহার মারা গেছেন। তারপর থেকে কখনো আরজিকর কখনো টালা থানা কখনো দমদম থানা কখনো দমদম সেন্ট্রাল জেল কখনো বারাসাত থানা দৌড়ে বেড়াচ্ছে পরিবারের লোকেরা। আজ চার দিন হয়ে গেলেও তার দেহ পায়নি পরিবার।

আরো পড়ুন-অয়ন শীলকে প্রেসিডেন্সি জেলে গিয়ে জেরা সিবিআই অফিসারদের

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে কোন জেলবন্দি নেশারু মৃত্যু হলে যে স্পেশাল ডাক্তারের ময়না তদন্তের জন্য প্রয়োজন হয় তার না থাকা এবং শুরুতে রাজা লোহার এর বাবার নাম ভুল থাকার কারণে দেহ দিতে দেরি হচ্ছে।এই ঘটনার নিন্দা করছেন বারাসাত সংসদীয় জেলার বিজেপি সভাপতি তাপস মিত্র।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *